image

রামপালে ৮ মাসের অন্ত:সত্ত্বা গৃহবধু মান্নিকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় মামলা দায়ের

image

রামপালে ৮ মাসের অন্ত:সত্ত্বা গৃহবধুকে মারধরের অভিযোগ রামপাল থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। মামলাটি করেন, আহত অন্ত:সত্ত্বা গৃহবধু সাদিয়া আকতার মান্নি (১৯)। আসামিরা হলেন, স্বামী শেখ আশিকুর রহমান সোহান, শাশুড়ী তাহমিনা বেগম, আকলাকুল ইসলাম নান্নু, শেখ তরিকুল ইসলাম ডালিম, মো. জাহাঙ্গীর হোসেন ও মো. সাইদুল ইসলাম। এজাহার সূত্রে জানাগেছে, চলতি বছরের ৬ জানুয়ারী রামপাল উপজেলার রনসেন গ্রামের আশিকুর রহমান সোহানের সাথে সাদিয়া আকতার মান্নির বিয়ে হয়। এরপর গৃহবধূ মান্নির স্বামী সোহান বিদেশ যাওয়ার কথা বলে ৭ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করেন। যৌতুক দিতে অস্বীকার করায় ওই গৃহবধূকে নির্যাতন করে পিতার বাড়িতে তাড়িয়ে দেন তার স্বামী । এরপর পিতা শুকুর কাজী  মেয়ের সুখের কথা চিন্তা করে মিমাংশা করার জন্য জামাইসহ তাদের আত্মীয় স্বজনদের নিজ বাড়িতে আসতে বলেন। ঘটনার দিন গত ৯ ডিসেম্বর বেলা সাড়ে ১২ টায় আসামীরা পিতা শুকুরের তালবুনিয়া গ্রামের বাড়ীতে হাজির হন। তারা উপস্থিত মেহমানদের যথাসাধ্য আপ্যায়ন করেন। আসামিদের সাথে আলোচনা করে মেয়েকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন শুকুর কাজী। কিন্তু যৌতুক লোভী স্বামী আশিক ও তার সাথে থাকা অন্যান্য আাসামীরা যৌতুকের ৭ লক্ষ টাকা দাবী করেন। টাকা দিতে অস্বীকার করায় ওই দিন সন্ধ্যা ৬ টায় আশীকসহ অন্যরা অন্ত:সত্ত্বা মান্নিকে মেরে ও মাথায় কুপিয়ে আহত করে পালিয়ে যায়। পরিবারের সদস্যরা মান্নিকে উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। এ ব্যাপারে রামপাল থানার ওসি মোঃ মনজুরুল আলমের কাছে জানতে চাইলে তিনি মামলা দায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আসামী ধরার জোর চেষ্টা চলছে।#