image

নীলফামারী পৌরসভা নির্বাচনে নৌকায় ভোট চেয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে নারী নেত্রীরা

image

 ২৮ নভেম্বর নীলফামারী পৌরসভা নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বর্তমান মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ এর জন্য ভোট প্রার্থনা করছেন বিভিন্ন পর্যায়ের নারী নেত্রী।
দলীয় প্রতিক নৌকায় ভোট চেয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাওয়ায় ভোটের মাঠে বিশেষ প্রভাব ফেলছে নারী নেত্রীদের সরব উপস্থিতির কারণে।
গত ১২নভেম্বর প্রতিক বরাদ্দের পর থেকে নির্বাচনী প্রচারণা আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হয় পৌরসভা এলাকায়। দলীয় ভাবে নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করছেন নীলফামারী পৌরসভার টানা পাঁচবারের নির্বাচিত মেয়র দেওয়ান কামাল আহমেদ।
তিনি নীলফামারী জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি বাংলাদেশ পৌরসভা সমিতির সভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব্ পালন করছেন।
এ কারণে দেশের বিভিন্ন স্থানের মেয়রগণও এসে সভাপতির জন্য ভোট চেয়েছেন। এরমধ্যে সৈয়দপুর পৌরসভার মেয়র রাফিকা আকতার জাহান, পঞ্চগড় পৌরসভার মেয়র জাকিয়া বেগমও এসেছিলেন নৌকায় ভোট চাওয়ার জন্য।
সরেজমিনে দেখা গেছে মহিলা আওয়ামীলীগ, যুব মহিলা লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা ছাড়াও নারী জনপ্রতিনিধিরাও রয়েছেন নৌকায় ভোট দিন ক্যাম্পেইনের তালিকায়।
নীলফামারী জেলা পরিষদ সদস্য ইসরাত জাহান পল্লবী ও শিউলি আক্তার, সদর উপজেলা পরিষদের নারী ভাইস চেয়ারম্যান সান্তনা চক্রবর্তি, সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের নারী ভাইস চেয়ারম্যান সানজিদা বেগম লাকিকে দেখা গেছে ভোটের মাঠে।
এদিকে কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে যুব মহিলা লীগের সহ-প্রশিক্ষণ ও পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক এবং বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড এর কেন্দ্রীয় মহাসচিব(কল্যান ও পুর্ণবাসন) সরকার ফারহানা আকতার সুমি প্রচারণা চালাচ্ছেন পাড়া মহল্লায় গিয়ে।
জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রোকেয়া ইসলাম রুপালি, সাধারণ সম্পাদক ফরিদা খানম এনা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রতনা সিনহা ও সাংগঠনিক সম্পাদক শিল্পি রায়ও নৌকায় ভোট চেয়ে যাচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে।
জেলা পরিষদের সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ড সদস্য ও জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসরাত জাহান পল্লবী বলেন, নীলফামারী পৌরসভায় বঙ্গবন্ধু কন্যা জননত্রেী শেখ হাসিনা নৌকা দিয়েছেন যোগ্য মানুষকে। দেওয়ান কামাল আহমেদ ৩৩বছর ধরে এলাকার উন্নয়নে কাজ করছেন। আমরা তাকে বিপুল ভোটে নির্বাচিত করতে চাই। এজন্য দিনরাত অবিরাম কাজ করছি। প্রাণের স্পন্ধন থেকে এটি করছি আমি।
জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা খানম এনা বলেন, এবারই প্রথম দলীয় প্রতিকে নির্বাচন হচ্ছে নীলফামারী পৌরসভায়। জেলার প্রথম শ্রেণীর পৌরসভা এটি।
বঙ্গবন্ধু কন্যা নীলফামারীকে নিয়ে ভাবেন। অনেক উন্নয়ন হয়েছে, অনেক প্রকল্প বাস্তবায়নের অপেক্ষায়। আগামীতে নীলফামারী আরো সুন্দর হবে এজন্য দেওয়ান কামাল আহমেদ এর বিকল্প নেই।
মানুষ নৌকাকে ব্যাপক ভোটে নির্বাচিত করতে চায় যেটি ভোট চাইতে গিয়ে আমরা অনুধাবন করতে পেরেছি।
মহিলা আওয়ামীলীগের প্রত্যেকটি কর্মী বিভিন্ন ভাগে ভাগ হয়ে নৌকার হয়ে পাড়া মহল্লায় গিয়ে ভোট চাচ্ছে এবং সরকারের সফলতার কথা বলছে।
জানতে চাইলে বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের সহ প্রশিক্ষণ ও পাঠাগার বিষয়ক সম্পাদক সরকার ফারহানা আকতার সুমি বলেন, নীলফামারী পৌরসভায় ভোট হচ্ছে স্বাধীনতার প্রতিক নৌকায়। আমার জেলায় ভোট হচ্ছে সে কারণে প্রাণের টানে ঢাকা থেকে নীলফামারী এসে কয়েক দিন থেকে কাজ করছি।
এজন্য আমি গর্বিত। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রতিক দিয়েছেন সঠিক ও যোগ্য প্রার্থীকে তার হয়ে কাজ করা আমার দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। আমরা নিশ্চিত বিপুল ভোটে কামাল ভাই বিজয়ী হয়ে বঙ্গবন্ধু কন্যার দেয়া প্রতিকের সুনাম উজ্জল করবে নীলফামারীবাসী।
এবারে নির্বাচিত হলে এই এলাকার উন্নয়ন আরো জোড়দার হবে এবং সুফল ভোগকরবেন পৌরবাসী